ফরহাদ মজহার দম্পতি জামিন পেলেন
ফরহাদ মজহার দম্পতি জামিন পেলেন

ফরহাদ মজহার দম্পতি জামিন পেলেন

মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলা করার অভিযোগ এনে করা মামলায় ফরহাদ মজহার ও তাঁর স্ত্রী ফরিদা আকতার আট সপ্তাহের আগাম জামিন পেয়েছেন। এরপর তাঁদের বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে। বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ জামিন চেয়ে তাঁদের করা আবেদনের শুনানি নিয়ে আজ সোমবার এ আদেশ দেন।

মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলা ও হয়রানির অভিযোগে গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর ফরহাদ মজহার ও তাঁর স্ত্রী ফরিদা আকতারের বিরুদ্ধে ওই মামলাটি করে পুলিশ। এই মামলায় সোমবার আদালতে হাজির হয়ে আইনজীবীর মাধ্যমে আগাম জামিনের আবেদন জানান তাঁরা।

আদালতে জামিন আবেদনকারীদের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. আসাদুজ্জামান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর আলম।

আইনজীবী সূত্র বলেছে, গত বছরের ৭ ডিসেম্বর ফরহাদ মজহার অপহরণ মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করে পুলিশ। ফরহাদ মজহার ও ফরিদা আকতারের বিরুদ্ধে মামলা করার অনুমতি চাওয়া হয়। আদালত চূড়ান্ত প্রতিবেদন গ্রহণ করে পুলিশকে মামলা করার অনুমতি দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) পরিদর্শক মাহবুবুল ইসলাম বাদী হয়ে ওই মামলাটি করেন। মামলার ভাষ্য, গত ৩ জুলাই ফরহাদ মজহার অপহৃত হয়েছেন বলে অভিযোগ এনে ফরিদা আকতার আদাবর থানায় মামলা করেন। ডিবি পুলিশ মামলা তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দিয়ে বলে, ফরিদার অভিযোগ সত্য নয়। চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিলের পর ৯ ডিসেম্বর ফরহাদ মজহার তাঁর হক গার্ডেনের বাসায় সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, অপহরণকারীরা তাঁকে খুলনা-যশোর সীমান্তের দিক দিয়ে সীমান্তের ওপারে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল। গত ৩ জুলাই ভোর পাঁচটার দিকে শ্যামলীর হক গার্ডেনের বাসা থেকে বের হওয়ার পরপরই তাঁকে অপহরণ করা হয়।