রেফারিরা শুধু বার্সার পক্ষে বাঁশি বাজায়!

রেফারিরা শুধু বার্সার পক্ষে বাঁশি বাজায়!

আলাভেসের বিপক্ষে বার্সেলোনা জিতলেও বিতর্ক ছড়িয়েছেন রেফারি ইগলেসিয়াস ভিলানুয়েভা। ৮৩ মিনিটে ফ্রি কিক থেকে লিওনেল মেসির গোলটি এসেছে একটি ফাউল থেকে। অথচ পাকো আলকাসের সেই ফাউলের শিকার হওয়ার মুহুর্তে অফসাইড ছিলেন! এর ৪ মিনিট পর পেনাল্টি পেতে পারত আলাভেস। মুনির এল হাদ্দাদির শট বার্সার বক্সের মধ্যে দাঁড়িয়ে থাকা স্যামুয়েল উমতিতির হাতে লেগে ফিরেছে। কিন্তু রেফারি ইগলেসিয়াস পেনাল্টির বাঁশি বাজাননি!

আলাভেস ডিফেন্ডার ভিক্টর লাগুয়ার্দিয়া তাই রেফারিকে নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। এর আগে ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে এই একই রেফারি বার্সার একটি গোল বাতিল করে দিয়েছিলেন। মেসির শট গোললাইন অতিক্রম করলেও ইগলেসিয়াস গোলের বাঁশি বাজাননি। ‘মেস্তালার সেই বিখ্যাত (!) সিদ্ধান্তই এ ম্যাচে প্রভাব রেখেছে’ বলে মনে করছেন লাগুয়ার্দিয়া।
২৮ বছর বয়সী এ স্প্যানিশের ভাষ্য, ‘এটা জানতাম যে বার্সার পক্ষে বাঁশি বাজানোই উত্তম। আমরা জানতাম সে (ইগলেসিয়াস) ওই ম্যাচের রেফারি ছিল। তাই সেই চাপ নিয়ে আবারও ভুল করে বার্সার বিপক্ষে বাঁশি বাজানোটা ভীষণ কঠিন ছিল। এটা পরিষ্কার যে রেফারিরা বড় দলগুলোর বিপক্ষে বেশি চাপে থাকে। তবে আজ সে (ইগলেসিয়াস) আলাভেসের বিপক্ষে বাঁশি বাজালেও কাল আমরা এটা নিয়ে কিছু বলবো না।’ 
লাগুয়ার্দিয়া বুঝিয়ে দিয়েছেন, আলাভেস ছোট দল বলেই রেফারি হয়তো পার পেয়ে যাবেন। তবে নির্ধারিত সময়ের ৩ মিনিট আগে পেনাল্টিটা প্রাপ্য ছিল আলাভেসের। তা না ঘটায় একটা প্রশ্ন উঠতেই পারে লা লিগায় বার্সা শেষ কবে পেনাল্টি হজম করেছিল? জবাব পেতে পরিসংখ্যান ঘাঁটতেই হবে। কারণ সাম্প্রতিককালে দলটি কোনো পেনাল্টি হজম করেনি। লিগে তাঁদের বিপক্ষে সর্বশেষ পেনাল্টির বাঁশি বেজেছে প্রায় দুই বছর আগে! ম্যাচের হিসেবে ৭৪ ম্যাচ। এ সময়ে রেফারিরা ৩২বার পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছেন বার্সার পক্ষে।
লিগে সর্বশেষ ২১৯টি পেনাল্টির একটিও বার্সার বিপক্ষে যায়নি। দলটি এ আসরে সর্বশেষ পেনাল্টি হজম করেছিল দুই বছর আগে ভালোবাসা দিবসে (১৪ ফেব্রুয়ারি)—সেল্টা ভিগোর হয়ে সেই ম্যাচে পেনাল্টি থেকে গোল করছিলেন এখন আলাভেসে ধারে খেলা জন গুইদেত্তি।