বিএনপি নেতা ফারুকসহ আসামি ৩৪৭, গ্রেপ্তার ১৭

বিএনপি নেতা ফারুকসহ আসামি ৩৪৭, গ্রেপ্তার ১৭

গাজীপুরে বিএনপির যৌথসভাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ ও ভাঙচুরের অভিযোগে বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৩৪৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ সোমবার দুপুরে গ্রেপ্তার ১৭ জনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল রোববার রাতে জয়দেবপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আসাদ মিয়া বাদী হয়ে এ মামলাটি করেন।

মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ফজলুল হক ও সাধারণ সম্পাদক কাজী সাইয়েদুল আলম, ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির যোগাযোগবিষয়ক সম্পাদক গাজী সুলতান শাহজাহানকে প্রধান আসামি করা হয়েছে।

জয়দেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, গতকাল দুপুরে মধ্য ছায়াবিথী এলাকায় ট্রাস্ট কমিউনিটি সেন্টারে বিএনপির যৌথ কর্মিসভাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের নেতা-কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ ও পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় রাস্তায় চলাচল করা একাধিক যানবাহন ও দোকান ভাঙচুর করেছেন তাঁরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে তাঁরা ইটপাটকেল ছুড়ে মারে। পরে ধাওয়া করে ঘটনাস্থল থেকে মামলার এক নম্বর আসামিসহ ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ২টি হকিস্টিক, ১২টি লাঠি ও ৪২ টুকরো ইট জব্দ করা হয়েছে। গ্রেপ্তার ১৭ জনকে আজ দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি এ কে এম ফজলুল হক বলেন, রোববারের যৌথসভাকে কেন্দ্র করে বিএনপির নেতা-কর্মীদের মধ্যে কোনো কোন্দল সৃষ্টি হয়নি। নিজেদের মধ্যে কোনো সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেনি। এ খবর সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।